স্কলারশিপ পেতে এবারে 60 শতাংশ নম্বরই যথেষ্ট, কীভাবে পাবেন পদ্ধতি দেখুন।

স্কলারশিপ সর্বদাই পড়ুয়াদের পড়াশোনাকে উৎসাহিত করে। রাজ্যের স্কুল থেকে শুরু করে কলেজ পড়ুয়াদের পড়াশোনাকে আরও ভালো ভাবে এগিয়ে নিয়ে যেতে রাজ্য সরকারের বিভিন্ন Scholarship এর মধ্যে স্বামী বিবেকানন্দ স্কলারশিপ বেশ লোকপ্রিয়। কীভাবে আবেদন করতে হবে এবারের অর্থাৎ ২০২৩-২৪ এর আবেদন। কী কী নথি রেডি রাখবেন, লাগবে কৎ শতাংশ নম্বর, ভিডিও গাইড সহ দেখুন স্টেপ বাই স্টেপ পদ্ধতি।

বিবেকানন্দ স্কলারশিপ পাবার আবেদন পদ্ধতি।
১) এই আবেদন করার জন্য প্রথমেই শিক্ষার্থীদের বিবেকানন্দ স্কলারশিপের অফিশিয়াল ওয়েবসাইট ভিজিট করতে হবে। অফিসিয়াল ওয়েবসাইটটি হলো https://svmcm.wbhed.gov.in
২) তারপর হোমপেজে থাকা হাউ টু অ্যাপ্লাই (How To Apply) অপশনে ক্লিক করতে হবে।
৩) তারপর একটি নতুন পেজ খুলবে। সেই পেজের নিচের দিকে থাকা একটি চেকবক্সে ক্লিক করুন। প্রসিড টু রেজিস্ট্রেশন (Proceed for Registration) অপশনে ক্লিক করতে হবে।

৪) এরপরে আসা নতুন পেজে অনেক অনেক অপশন থাকবে। সেইসব অপশন এর মধ্যে দিয়ে ডিরেক্টরেট অফ স্কুল এডুকেশন (Directorate Of School Education) অপশনে যান। সেখানে স্টাডিং ইন হায়ার সেকেন্ডারি স্কুলস (Studying in Higher Secondary Schools) অপশনটিতে ক্লিক করতে হবে।
৫) তারপর অ্যাপ্লাই ফর ফ্রেশ অ্যাপ্লিকেশন (Apply For Fresh Application) অপশন এ ক্লিক করতে হবে।

৬) এবার রেজিস্ট্রেশন ফর্মটি সামনে আসবে। ওই রেজিস্ট্রেশন ফর্মে পরীক্ষার্থীর পূর্ববর্তী পরীক্ষা সম্পর্কিত সমস্ত তথ্য প্রদান করতে হয়। সেই ক্ষেত্রে মাধ্যমিক পরীক্ষা অপশনটি বেছে নিতে হবে। তারপর মাধ্যমিক পরীক্ষা সংক্রান্ত যাবতীয় তথ্য অর্থাৎ শিক্ষার্থী কোন সালে মাধ্যমিক দিয়েছে তা দিতে হবে। কোন বোর্ডের অধীনে পরীক্ষা দিয়েছে, পরীক্ষার রোল নম্বর, কত শতাংশ নম্বর পেয়েছে ইত্যাদি প্রদান করতে হবে।
৭) এরপর শিক্ষার্থীকে বর্তমান কোর্সের সমস্ত তথ্য এবং শিক্ষার্থীর নাম, ইমেইল আইডি, ফোন নম্বর প্রদান করতে হবে।

WhatsApp Group Join Now
Telegram Group Join Now

বিবেকানন্দ স্কলারশিপ পেতে সম্পূর্ণ আবেদন পদ্ধতি।

৮) তারপর একটি পাসওয়ার্ড তৈরি করে তা কনফার্ম করে নাম রেজিস্টার করতে হবে।
৯) সাথে সাথে প্রদত্ত মোবাইল নম্বরে একটি ওটিপি (OTP) আসবে। ওই ওটিপি ভেরিফিকেশন (Verification) করলে তবেই শিক্ষার্থীর রেজিস্ট্রেশন (Registration) প্রক্রিয়াটি সম্পন্ন হবে।
১০) রেজিস্ট্রেশন সম্পন্ন হওয়ার পর, একটি রেজিস্ট্রেশন আইডি দেওয়া হবে। তবে ভবিষ্যতের রেফারেন্সের জন্য রেজিস্ট্রেশন কপিটি ডাউনলোড করে রাখা উচিত।

১১) এবার পুনরায় ওয়েবসাইটের হোমপেজে এসে অ্যাপ্লিকেন্ট লগইন (Applicant Log in) অপশনে ক্লিক করতে হবে। তারপর সেখানে এপ্লিকেন্ট আইডি (Applicant ID), পাসওয়ার্ড (Password) এবং সিকিউরিটি কোড (Security Code) লিখে লগইন করতে হবে।
১২) লগইন করার পর বাঁদিকে থাকা ড্যাশবোর্ড (Dashboard) -এ এডিট এপ্লিকেশন (Edit Application) অপশনে ক্লিক করতে হবে। পেজটির নিচে উল্লেখ করা নথি গুলিকে আপলোড করতে হবে। আপলোড করার পর সেভ অ্যান্ড কন্টিনিউ (Save and Continue) অপশনে ক্লিক করতে হবে।

১৩) এবার শিক্ষার্থীর সামনে Scholarship -এর আবেদনের জন্য প্রয়োজনীয় ফর্মটি চলে আসবে। এই ফর্মে শিক্ষার্থীর পিতা, মাতার নাম, অভিভাবকের নাম, অভিভাবকের পেশা, জন্ম তারিখ দিতে হবে। এছাড়া বিশেষভাবে সক্ষম কিনা, মাইনরিটি ক্যাটাগরি ভুক্ত কিনা, আধার নম্বর সহ অন্যান্য প্রয়োজনীয় তথ্যগুলি প্রদান করতে হবে।
১৪) তারপর শিক্ষার্থীকে বাড়ির ঠিকানা এবং ব্যাংক একাউন্টের সমস্ত তথ্য সঠিকভাবে উল্লেখ করে আবারও সেভ অ্যান্ড কন্টিনিউ (Save and Continue) অপশনে ক্লিক করতে হবে।

১৫) তারপর ব্যাংক ডিটেলস আপলোড করে চেকবক্সে ক্লিক করে সেভ অ্যান্ড কন্টিনিউ (Save and Continue) অপশনে ক্লিক করতে হবে।
১৬) উপরিক্ত পদ্ধতিটি সঠিকভাবে সম্পন্ন হলে শিক্ষার্থীর সামনে ফর্মের একটি প্রিভিউ কপি (Preview Copy) আসবে। ওই প্রিভিউ কপিতে যদি কোন ভুল থাকে তাহলে তা পুনরায় এডিট করতে হবে। আর যদি রিভিউ কপি সঠিক থাকে তাহলে সাবমিট অ্যাপ্লিকেশন (Submit Application) অপশন ক্লিক করলে গোটা আবেদন প্রক্রিয়াটি সম্পূর্ণ হবে।

WhatsApp Group Join Now
Telegram Group Join Now

স্বামী বিবেকানন্দ স্কলারশিপ এর জন্য প্রয়োজনীয় নথি।
১. আবেদনকারীর রঙ্গিন ও পাসপোর্ট সাইজ ছবি।
২. আবেদনকারীর স্বাক্ষর।
৩. পরিবারের বাৎসরিক আয়ের সার্টিফিকেট।

একজন ২ বছরের ড্রপার SVMCM বৃত্তির জন্য আবেদন করতে পারে?
সমস্ত ড্রপার ছাত্রদের জন্য SVMCM ২০২৩ বৃত্তির নতুন বড় আপডেট। গত ২০২২-২৩ পাসআউট ছাত্ররা যোগ্য।
স্বামী বিবেকানন্দ বৃত্তি কি মাসিক?
স্বামী বিবেকানন্দ স্কলারশিপ স্কিমের অধীনে একজন যে পরিমাণ পুরষ্কার পাবেন তা মূলত নির্ভর করে একজন বর্তমানে যে কোর্স বা অধ্যয়ন করছেন তার উপর। সাধারণত, এই বৃত্তির পরিমাণ প্রতি মাসে INR ১০০০ থেকে প্রতি মাসে INR ৫০০০ পর্যন্ত পরিবর্তিত হতে পারে।

Post Disclaimers

'whatsupbengal.in' একটি বাংলা অনলাইন ব্লগ নিউজ পোর্টাল। এই নিবন্ধে এবং আমাদের সোশ্যাল মিডিয়া প্ল্যাটফর্মে প্রদত্ত তথ্যগুলি বিশ্বাসযোগ্য, যাচাই করা এবং অন্যান্য বড় মিডিয়া হাউস থেকে নেওয়া হয়েছে তা নিশ্চিত করার জন্য আমরা সমস্ত ব্যবস্থা নিয়েছি। এই ওয়েবসাইটে দেওয়া বিষয়বস্তু শুধুমাত্র তথ্য ও শিক্ষামূলক উদ্দেশ্যে।
যোগাযোগ - wspbengal@gmail.com
নম্বর - 6297256750 (হোয়াটসঅ্যাপ)

আমাদের সাথে যুক্ত থাকুন

*ফেসবুক পেজ - Join Here
*হোয়াটস্যাপ চ্যানেল - Follow Us
*টেলিগ্রাম চ্যানেল - Join Here
*কু অ্যাপ - Like Us
*ট্যুইটার - Follow Us

হ্যালো প্রিয় পাঠকবৃন্দ, আমরা একটি দল হিসেবে কঠোর পরিশ্রম করছি আপনাদের জন্য শুধুমাত্র শিক্ষামূলক উদ্দেশ্যে বিশ্বাসযোগ্য এবং মূল্যবান কন্টেন্ট সরবরাহ করতে। আমরা শিক্ষা, সরকারি স্কিম, সরকারি কর্মচারী, প্রযুক্তি, টেলিকম, দৈনিক আপডেট, আর্থিক বিষয়, ব্যবসার ধারণা, বৃত্তি ইত্যাদি নিয়ে কাজ করছি। আশা করি আপনাদের ভালো লাগবে। প্রতিটি ব্লগ পোস্টের জন্য একটি মূল্যবান মন্তব্য করতে ভুলবেন না। আমাদের সাথে থাকার জন্য ধন্যবাদ। কোনো প্রয়োজনে আমাদের wspbengal@gmail.com ঠিকানায় লিখুন।

Leave a Comment

Home
জয়েন চ্যানেল
জয়েন গ্রুপ
ফলো পেজ
আপডেট
error: Content is protected !!
Madhyamik Exam – মাধ্যমিক নয়ে জরুরী নির্দেশিকা প্রকাশ পোস্ট অফিসে ডাবল রিটার্ন, এভাবে টাকা জমালেই পাবেন সুযোগ! স্কুল ছুটির ঘোষণা রাজ্যে! টানা ২ দিন বন্ধ থাকছে, দেখুন।