রাষ্ট্রদ্রোহ আইন সহ নতুন বিল নিয়ে বিস্তারিত দেখুন।

রাষ্ট্রদ্রোহ আইন সহ আরও নতুন বিল নিয়েই আজকের এই প্রতিবেদন। সামনেই 15 ই আগস্ট। 76 তম স্বাধীনতা দিবসের প্রাক্কালে বড় ঘোষণা কেন্দ্র সরকারের। বহু বছর হয়ে গেছে ঔপনিবেশিক শাসন থেকে ভারতের মুক্তি পেয়ে। কিন্তু এখনও পর্যন্ত তার কিছু চিহ্ন রয়ে গেছে। এবার ঔপনিবেশিকতার সমস্ত চিহ্ন মুছে ফেলা হবে ভারতীয় বিচার ব্যবস্থার থেকে। জানা যাচ্ছে ভারতের ফৌজদারী বিচার ব্যবস্থা বা ক্রিমিনাল জাস্টিস সিস্টেমে বদল ঘটতে চলেছে।

এখন প্রশ্ন হচ্ছে এই রাষ্ট্রদ্রোহ আইন কি?

এই রাষ্ট্রদ্রোহ আইনটির প্রথম খসড়া তৈরি করা হয়েছিল ১৮৩৭ সালে টমাস ম্যাকওলে দ্বারা। ১৮৭০ সালে জেমস স্টিফেন ১২৪এ ধারা হিসেবে ভারতীয় দণ্ডবিধিতে যুক্ত করেছিলেন। এই ধারা অনুযায়ী, কেউ শব্দ দ্বারা (কথিত বা লিখিত), চিহ্ন দ্বারা বা দৃশ্যমান উপস্থাপনা দ্বারা উত্তেজনা সৃষ্টি করে, তবে সংশ্লিষ্ট ব্যক্তির বিরুদ্ধে প্রয়োজনীয় পদক্ষেপ নেওয়া যাবে।

এই নিয়ে শুক্রবার কেন্দ্রীয় স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী অমিত শাহ 3 টি বিল পেশ করেছেন। এই 3 টি বিল হল- ক. ভারতীয় ন্যায়সংহিতা, 2023; খ. ভারতীয় নাগরিক সংহিতা, 2023; গ. ভারতীয় সাক্ষ্য অধিনিয়ম, 2023। এই বিল 3 টি যথাক্রমে IPC 1860, CRPS (1898) 1973 ও ইন্ডিয়ান এভিডেন্স অ্যাক্ট 1872 এর অন্তর্গত। এই বিলগুলিতেই আনা হয়েছে বেশ কিছু পরিবর্তন। অনেক কিছু নতুন যুক্ত করাও হয়েছে এগুলিতে।

আবার তামাদি হয়ে যাওয়া কয়েকটি আইন বাতিল করা হয়েছে। এছাড়াও কিছু কিছু ক্ষেত্রে শাস্তির বিধান ও অপরাধের সংজ্ঞায় পরিবর্তন আনা হয়েছে। শুক্রবার কেন্দ্রীয় স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী অমিত শাহ বলেন, 15 ই আগস্ট ‘আজাদি কা অমৃত মহোৎসব’ শেষ হয়ে যাবে। আর 16 ই আগস্ট থেকে শুরু হবে স্বাধীনতার 100 বছরের যাত্রা। গত বছর প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদি লালকেল্লায় পাঁচটি শপথ নিয়েছিলেন। তার মধ্যে থেকে অন্যতম ছিল দাসত্বের ইতি।

WhatsApp Group Join Now
Telegram Group Join Now

দেশে রাষ্ট্রদ্রোহ আইন সংক্রান্ত এই তিনটি বিলের মধ্যে দিয়ে ভারতে ফৌজদারি প্রক্রিয়ায় পরিবর্তন ঘটবে। আর ঔপনিবেশিকতার সমস্ত চিহ্ন মুছে যাওয়ার পথ শুরু হবে। তাঁর মতে, ব্রিটিশ সরকার কেবলমাত্র শাস্তি দেওয়ার জন্যই এই আইন জারি করেছিল। ন্যায় দান কখনওই এই আইনের মধ্যে পড়ত না। ভারতীয়দের সঠিক বিচার পাওয়াতে এই 3 টি বিল আনা হচ্ছে। এই আইনের মাধ্যমে সঠিক বিচারের দিকে লক্ষ্য রাখা হবে।

নতুন আইনের লক্ষ্য

অপরাধ দমনই এই আইনের লক্ষ্য। কিন্তু এদিন সাধারণ মানুষের সবথেকে বেশি আগ্রহ ছিল রাষ্ট্রদ্রোহ আইন সম্পর্কে জানার। আসলে 2022 সালের মে মাসে সুপ্রিম কোর্ট একটি রায় দিয়েছিলেন। সেই রায় অনুযায়ী আপাতত রাষ্ট্রদ্রোহ আইন স্থগিত আছে। তার কারণ যতদিন ভারতীয় দণ্ডবিধির 124A ধারার বৈধতা নিয়ে কেন্দ্র সরকার পুনর্বিবেচনা না করবেন, ততদিন এই স্থগিতাদেশ বজায় থাকবে। ফলে রাজ্য সরকার ও কেন্দ্র সরকার কাউকেই এই আইনের আওতায় আনতে পারবে না।

সাধারণ মানুষের আগ্রহ মিটিয়ে এই সম্পর্কে জানিয়েছেন স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী অমিত শাহ। তিনি জানিয়েছেন, এই বিলের মধ্যে দিয়ে বাতিল হয়ে যাবে রাষ্ট্রদ্রোহ আইন। এছাড়াও মহিলা ও শিশুদের ওপর অত্যাচার করলে সাজা নিশ্চিত করা হবে। এক্ষেত্রে সাজা ভীষণ কঠিন হবে বলেই তিনি জানিয়েছেন। পাশাপাশি যদি গণপ্রহার বা গণপিটুনিতে মৃত্যু ঘটে সেই নিয়েও গুরুত্ব সহকারে সাজা নিশ্চিত করতে হবে। এক্ষেত্রে সর্বোচ্চ ‘ক্যাপিটাল পানিশমেন্ট’ অর্থাৎ ‘ফাঁসির সাজা’ দেওয়া যাবে।

WhatsApp Group Join Now
Telegram Group Join Now

তবে এই বিল 3 টি আপাতত স্ট্যান্ডিং কমিটিতে পর্যালোচনায় রয়েছে। আপনাদের একটু রাষ্ট্রদ্রোহ আইন সম্পর্কে জানাই। বিশেষজ্ঞদের মতে এই আইন পুরোপুরি প্রত্যাহার করা হয়নি। কেবলমাত্র ‘সেডিশন’ শব্দটি বাদ দেওয়া হয়েছে। আর নতুনভাবে ব্যাখ্যা করা হয়েছে রাষ্ট্রদ্রোহ আইনের। ভারতীয় ন্যায় সংহিতার 150 ধারায় বলা হয়েছে, ‘কথা, লেখা, আকার, ইঙ্গিত, ছবি অথবা বৈদ্যুতিন ব্যবস্থায় কিংবা আর্থিক কোনও পন্থায় অথবা অন্যভাবে দেশের অখন্ডতার পরিবেশকে ক্ষুন্ন করার চেষ্টা ক’রে বা সার্বভৌমত্বে আঘাত হানে অথবা সরাসরি যুক্ত থাকে তাহলে তার যাবজ্জীবন কারাদণ্ড হতে পারে। সঙ্গে জরিমানাও করা হবে।’ আরও জানতে পড়ুন, ক্লিক করুন এখানেই

LPG Gas Price | আগস্টে বাণিজ্যিক গ্যাস 100 টাকা কমলেও ডোমেস্টিক গ্যাস কত হল! দাম দেখুন।

উপসংহার

কেন্দ্র সরকারের তরফ থেকে জানা যাচ্ছে, 2014 সাল থেকে 2020 সাল পর্যন্ত, মোট 6 বছরে 399 টি রাষ্ট্রদ্রোহ মামলা রুজু করা হয়েছে। দিল্লী পুলিশের একটি অনুষ্ঠানে আগেই তিনি এই বিলে পরিবর্তন আনার ইঙ্গিত দিয়েছিলেন। তিনি জানিয়েছিলেন, IPC ও CRPC ধারায় পরিবর্তন আসতে চলেছে। আর নিজের কথা রেখেই শুক্রবার দিন এই ঘোষণা করেছেন অমিত শাহ। এই সম্পর্কে আপনাদের মতামত আমাদের জানাতে ভুলবেন না। এই ধরনের আরও তথ্য পেতে অবশ্যই আমাদের ওয়েবসাইট ফলো করে রাখুন।

Post Disclaimers

'whatsupbengal.in' একটি বাংলা অনলাইন ব্লগ নিউজ পোর্টাল। এই নিবন্ধে এবং আমাদের সোশ্যাল মিডিয়া প্ল্যাটফর্মে প্রদত্ত তথ্যগুলি বিশ্বাসযোগ্য, যাচাই করা এবং অন্যান্য বড় মিডিয়া হাউস থেকে নেওয়া হয়েছে তা নিশ্চিত করার জন্য আমরা সমস্ত ব্যবস্থা নিয়েছি। এই ওয়েবসাইটে দেওয়া বিষয়বস্তু শুধুমাত্র তথ্য ও শিক্ষামূলক উদ্দেশ্যে।
যোগাযোগ - wspbengal@gmail.com
নম্বর - 6297256750 (হোয়াটসঅ্যাপ)

আমাদের সাথে যুক্ত থাকুন

*ফেসবুক পেজ - Join Here
*হোয়াটস্যাপ চ্যানেল - Follow Us
*টেলিগ্রাম চ্যানেল - Join Here
*কু অ্যাপ - Like Us
*ট্যুইটার - Follow Us

হ্যালো প্রিয় পাঠকবৃন্দ, আমরা একটি দল হিসেবে কঠোর পরিশ্রম করছি আপনাদের জন্য শুধুমাত্র শিক্ষামূলক উদ্দেশ্যে বিশ্বাসযোগ্য এবং মূল্যবান কন্টেন্ট সরবরাহ করতে। আমরা শিক্ষা, সরকারি স্কিম, সরকারি কর্মচারী, প্রযুক্তি, টেলিকম, দৈনিক আপডেট, আর্থিক বিষয়, ব্যবসার ধারণা, বৃত্তি ইত্যাদি নিয়ে কাজ করছি। আশা করি আপনাদের ভালো লাগবে। প্রতিটি ব্লগ পোস্টের জন্য একটি মূল্যবান মন্তব্য করতে ভুলবেন না। আমাদের সাথে থাকার জন্য ধন্যবাদ। কোনো প্রয়োজনে আমাদের wspbengal@gmail.com ঠিকানায় লিখুন।

Leave a Comment

Home
জয়েন চ্যানেল
জয়েন গ্রুপ
ফলো পেজ
আপডেট
error: Content is protected !!
Madhyamik Exam – মাধ্যমিক নয়ে জরুরী নির্দেশিকা প্রকাশ পোস্ট অফিসে ডাবল রিটার্ন, এভাবে টাকা জমালেই পাবেন সুযোগ! স্কুল ছুটির ঘোষণা রাজ্যে! টানা ২ দিন বন্ধ থাকছে, দেখুন।