E-Sanjeevani Scheme: বিনামূল্যে অনলাইনে ডাক্তারি পরিষেবা পেতে দেখুন।

PM e-Sanjeevani Scheme 2023 হল ভারত সরকারের একটি অভিনব উদ্যোগ যা নাগরিকদের একটি অনলাইন বহিরাগত রোগীর পরামর্শ পরিষেবা সুবিধা প্রদান করে। ইতিমধ্যেই 9 কোটির বেশি মানুষের উপকারে এসেছে কেন্দ্রের এই স্কিম। এটি একটি ঐতিহাসিক মাইলফলক হিসেবে চিহ্নিত কারণ বিশ্বের অন্য কোনো সরকার তার নাগরিকদের এ ধরনের সেবা দেয়নি। প্রকল্পটি নভেম্বর 2019 সালে চালু করা হয়েছিল এবং স্বাস্থ্য ও পরিবার কল্যাণ মন্ত্রকের তত্ত্বাবধানে এটি কার্যকর করা হচ্ছে।

কি এই ই-সঞ্জীবনী স্কিম (e-sanjeevani scheme)?

ন্যাশনাল টেলিকনসালটেশন সার্ভিস স্থাপিত হয়েছে রোগীদের নিজেদের ঘরে বসে স্বাস্থ্যসেবা দিতে। এই উদ্ভাবনী ই-সঞ্জীবনী পরিষেবাটি (e-sanjeevani scheme) ডিজাইন করা হয়েছে যাতে রোগীরা দেশের যেকোনো স্থান থেকে চিকিৎসা সহায়তা পেতে পারেন। দেশের প্রতিটি কোণে প্রয়োজনে একজন ডাক্তারের কাছে যাওয়া সবসময় সম্ভব হয় না, বিশেষ করে পার্বত্য অঞ্চলে। অতএব, এই পরিষেবার প্রবর্তনের লক্ষ্য এই ব্যবধান পূরণ করা এবং রোগীদের অবস্থান নির্বিশেষে দ্রুত চিকিৎসা সেবা প্রদান করা।

এই ই-সঞ্জীবনী স্কিম রোগী এবং ডাক্তারদের অনলাইনে সংযোগ করার জন্য একটি নির্ভরযোগ্য এবং নিরাপদ টেলিযোগাযোগ প্ল্যাটফর্ম প্রতিষ্ঠা করেছে, যা ই-সঞ্জীবনী OPD স্কিম নামে পরিচিত। এই উদ্যোগটি নিশ্চিত করে যে রোগীরা দূরবর্তী অবস্থান থেকে যথাযথ চিকিৎসা সেবা গ্রহণ করে, কঠোর প্রবিধান এবং নিরাপত্তা প্রোটোকল মেনে চলার সময়।

ই-সঞ্জীবনী ওপিডি সিস্টেম কি?

ই-সঞ্জীবনী ওপিডি সিস্টেম, যা এখন মোবাইল অ্যাপ্লিকেশনগুলিতে উপলব্ধ, মোহালিতে সেন্টার ফর ডেভেলপমেন্ট অফ অ্যাডভান্সড কম্পিউটিং (সি-ড্যাক) দ্বারা তৈরি করা হয়েছে। এটি রাজ্য সরকার যে ডাক্তারদের গ্রুপের তত্ত্বাবধান করে যারা পরিষেবার মাধ্যমে পরামর্শ প্রদান করে। এছাড়াও, কিছু রাজ্য যেমন ঝাড়খণ্ড, কেরালা, পাঞ্জাব এবং তামিলনাড়ুও এখন বিশেষায়িত চিকিৎসা পরামর্শ দিচ্ছে। নামে একই হওয়া সত্ত্বেও, ই-সঞ্জীবনী এবং ই-সঞ্জীবনী ওপিডি-তে কিছু পার্থক্য রয়েছে।

WhatsApp Group Join Now
Telegram Group Join Now

স্বাস্থ্য ও পরিবার কল্যাণ মন্ত্রক দ্বারা পরিচালিত আয়ুষ্মান ভারত প্রকল্পের তত্ত্বাবধানে এই সিস্টেমটি দেশব্যাপী প্রয়োগ করা হয়েছে। প্রযুক্তির শক্তিকে কাজে লাগিয়ে, ই-সঞ্জীবনী প্রত্যন্ত অঞ্চলের রোগীদের উচ্চমানের চিকিৎসা পরিষেবা প্রদান করতে সক্ষম যারা অন্যথায় তাদের প্রয়োজনীয় যত্ন অ্যাক্সেস করতে লড়াই করতে পারে। এই উদ্ভাবনী প্ল্যাটফর্মের মাধ্যমে, ডাক্তাররা রিয়েল-টাইমে একে অপরের সাথে যোগাযোগ করতে পারে, রোগীর ফলাফল উন্নত করতে এবং সারা দেশে প্রদত্ত যত্নের মান উন্নত করতে ডেটা, অন্তর্দৃষ্টি এবং দক্ষতা ভাগ করে নিতে পারে। আপনি অন্য চিকিৎসা পেশাদারদের সাথে সংযোগ করতে চাইছেন এমন একজন ডাক্তার, অথবা দ্রুত, কার্যকরী চিকিৎসার জন্য একজন রোগী, ই-সঞ্জীবনী একটি অমূল্য হাতিয়ার যা আপনাকে আপনার লক্ষ্য অর্জনে সাহায্য করতে পারে।

ই-সঞ্জীবনী স্কিম কবে থেকে চালু হয়েছিল (e-sanjeevani scheme)?

2019 সালটি ই-সঞ্জীবনী (e-sanjeevani scheme) চালুর সাক্ষী ছিল, যা প্রাথমিকভাবে অন্ধ্র প্রদেশ রাজ্যে চালু করা হয়েছিল। 2020 সালে, ই-সঞ্জীবনী ওপিডি চালু করা হয়েছিল। এই উদ্ভাবনী সিস্টেমে রোগীর নিবন্ধন টোকেন এবং টোকেনের প্রাপ্তি এবং সম্মতি নিশ্চিত করার জন্য প্রয়োজনীয় পদ্ধতির মতো বেশ কয়েকটি বৈশিষ্ট্য রয়েছে।

উপরন্তু, সিস্টেমে একটি ব্যবস্থাপনার দিকও রয়েছে যা সমস্ত সম্পর্কিত ক্রিয়াকলাপ এবং ক্রিয়াকলাপ তত্ত্বাবধান করে। ডাক্তার ইলেকট্রনিক মাধ্যমে যেমন এসএমএস বা ইমেলের মাধ্যমে রোগীর সাথে একটি অডিও এবং ভিডিও পরামর্শ পরিচালনা করবেন। এছাড়াও, ডাক্তার রোগীকে একটি ইলেকট্রনিক প্রেসক্রিপশনও ইস্যু করবেন।

WhatsApp Group Join Now
Telegram Group Join Now

রাষ্ট্র ডাক্তারদের একটি বিনামূল্যে পরিষেবা প্রদান করছে, যা নিশ্চিত করে যে রোগীরা তাদের স্বাস্থ্য সংক্রান্ত বিষয়ে সম্পূর্ণ পরামর্শ পাবেন। এই পরিষেবাটি কাস্টমাইজ যোগ্য, রোগীদের দৈনিক স্লটের সংখ্যা, উপলব্ধ ডাক্তার/ক্লিনিকের সংখ্যা, ওয়েটিং রুম স্লট এবং পরামর্শের সময়কাল বেছে নেওয়ার অনুমতি দেয়। এই পরিষেবার মাধ্যমে, রোগীরা সহজেই বিশ্রাম নিতে পারেন যে তাদের স্বাস্থ্যের উদ্বেগগুলি চিকিৎসা পেশাদাররা কোনও আর্থিক বোঝা ছাড়াই সমাধান করবেন।

ই-সঞ্জীবনী OPD

ই-সঞ্জীবনী OPD হল একটি প্ল্যাটফর্ম যা সারাদেশে দূরবর্তী বহিরাগত রোগীদের পরামর্শ এবং পরিষেবা সরবরাহ করে। সিস্টেমটি সফল ই-সঞ্জীবনী (e-sanjeevani scheme) মডেলের উপর ভিত্তি করে এবং কোভিড মহামারীর প্রতিক্রিয়া হিসাবে এপ্রিল 2020 এ চালু করা হয়েছিল। এর প্রাথমিক লক্ষ্য হল নাগরিকদের তাদের নিজস্ব বাড়িতে আরামদায়ক চিকিৎসা সেবা প্রদান করা।

পিএম কিষাণ প্রকল্প – মিলবে দ্বিগুণ টাকা! কারা পাচ্ছেন

এই সুবিধাটিতে, রোগীদের বিনা মূল্যে ব্যাপক চিকিৎসা নির্দেশিকা এবং চিকিত্সকদের সাথে দূরবর্তী পরামর্শ প্রদান করা হয়। দেশে চিকিৎসক সংকটের কারণে চিকিৎসা ক্ষেত্রে ভারত পিছিয়ে রয়েছে। চাহিদার তুলনায় ডাক্তারের উল্লেখযোগ্য ঘাটতি রয়েছে, প্রতি 1445 জনের জন্য মাত্র একজন ডাক্তার পাওয়া যায়। এই অভাব বিশেষ করে প্রত্যন্ত, গ্রামীণ এবং পার্বত্য অঞ্চলে প্রবল। একটি ই-রিজুমি সিস্টেম এই এলাকার জন্য অত্যন্ত উপকারী হতে পারে। e-sanjeevani scheme ছাড়াও কেন্দ্রের নানা স্কিম জানতে আমাদের সাথে থাকুন। সকলে সুস্থ থাকুন, ভালো থাকুন।

Post Disclaimers

'whatsupbengal.in' একটি বাংলা অনলাইন ব্লগ নিউজ পোর্টাল। এই নিবন্ধে এবং আমাদের সোশ্যাল মিডিয়া প্ল্যাটফর্মে প্রদত্ত তথ্যগুলি বিশ্বাসযোগ্য, যাচাই করা এবং অন্যান্য বড় মিডিয়া হাউস থেকে নেওয়া হয়েছে তা নিশ্চিত করার জন্য আমরা সমস্ত ব্যবস্থা নিয়েছি। এই ওয়েবসাইটে দেওয়া বিষয়বস্তু শুধুমাত্র তথ্য ও শিক্ষামূলক উদ্দেশ্যে।
যোগাযোগ - wspbengal@gmail.com
নম্বর - 6297256750 (হোয়াটসঅ্যাপ)

আমাদের সাথে যুক্ত থাকুন

*ফেসবুক পেজ - Join Here
*হোয়াটস্যাপ চ্যানেল - Follow Us
*টেলিগ্রাম চ্যানেল - Join Here
*কু অ্যাপ - Like Us
*ট্যুইটার - Follow Us

হ্যালো প্রিয় পাঠকবৃন্দ, আমরা একটি দল হিসেবে কঠোর পরিশ্রম করছি আপনাদের জন্য শুধুমাত্র শিক্ষামূলক উদ্দেশ্যে বিশ্বাসযোগ্য এবং মূল্যবান কন্টেন্ট সরবরাহ করতে। আমরা শিক্ষা, সরকারি স্কিম, সরকারি কর্মচারী, প্রযুক্তি, টেলিকম, দৈনিক আপডেট, আর্থিক বিষয়, ব্যবসার ধারণা, বৃত্তি ইত্যাদি নিয়ে কাজ করছি। আশা করি আপনাদের ভালো লাগবে। প্রতিটি ব্লগ পোস্টের জন্য একটি মূল্যবান মন্তব্য করতে ভুলবেন না। আমাদের সাথে থাকার জন্য ধন্যবাদ। কোনো প্রয়োজনে আমাদের wspbengal@gmail.com ঠিকানায় লিখুন।

Leave a Comment

Home
জয়েন চ্যানেল
জয়েন গ্রুপ
ফলো পেজ
আপডেট
error: Content is protected !!
Madhyamik Exam – মাধ্যমিক নয়ে জরুরী নির্দেশিকা প্রকাশ পোস্ট অফিসে ডাবল রিটার্ন, এভাবে টাকা জমালেই পাবেন সুযোগ! স্কুল ছুটির ঘোষণা রাজ্যে! টানা ২ দিন বন্ধ থাকছে, দেখুন।