ফ্রি রেশন নিয়ে পশ্চিমবঙ্গে চালু নতুন নিয়ম, ৯ কোটি গ্রাহক আনন্দে আত্মহারা!

ফ্রি রেশন পাচ্ছে রাজ্যের কোটি কোটি গ্রাহক। তবে এবারে সেই সকল গ্রাহকদের জন্য এমাস থেকেই চলে এলো নতুন এক আনন্দের খবর। ঝামেলার দিন শেষ। এবার থেকে এই সুবিধা পাবেন প্রত্যেকেই। Free Ration পেতেও আর হবে না কোন রকমের ঝামেলা। তবে নতুন করে আবার চালু হচ্ছে কোন নিয়ম আর সেই নিয়ম আনুসারে রেশন তুলতে আপনাকে করতে হবে কোন কাজ! এই সকল বিষয়ে জানতে দেখে নিন আজকের এই প্রতিবেদন। এতে আপনি পাবেন কতটা বাড়তি সুবিধা! ঝামেলা মিটবে কতটা, দেখুন।

রেশন কার্ডের গুরুত্ব রয়েছে ভারতবর্ষের প্রত্যেক জনগণের। বিগত মহামারীর সময়ে এর বিশেষ গুরুত্ব ফুটে উঠেছিল। ফ্রি রেশন ওপরে নির্ভর করে নিজেদের জীবন রক্ষা করা সম্ভব হয়েছিল বহু মানুষেরই। যদিও এই কার্ড তাদের স্থানীয় বাসিন্দার পরিচয় পত্র হিসেবে কাজে লাগে। আবার একই সাথে সাধারণ মানুষের জীবন চালাতে আর্থিক দিক থেকে পিছিয়ে থাকা বহু সাধারণ মানুষের বেঁচে থাকার অবলম্বন এই রেশন কার্ড।

ফ্রি রেশন হচ্ছে আরও নিশ্চিন্তের!

এবারে রাজ্যে ফ্রি রেশন নিয়ে বিশেষ এই ঘোষণা হয়েই গেল। নিশ্চিন্ত হলেন কোটি কোটি গ্রাহক। WBPDS এবং খাদ্যসাথী প্রকল্পের অধীনে রাজ্যের মানুষের জন্য Free Ration -এর ব্যবস্থা করেছে রাজ্য সরকার। সেক্ষেত্রে কেন্দ্রের বরাদ্দ মিলিয়েই রাজ্যবাসী এই সুবিধা পেয়ে থাকেন। তবে এবারে রাজ্যের খাদ্যমন্ত্রী এই সমস্যার বিষয়ে বিশেষ গুরুত্ব দিয়েছেন। আর এর প্রধান কারণ হচ্ছে দুয়ারে সরকার। কারণ সেখানে এসে সাধারণ মানুষ তাদের নিজেদের বিভিন্ন সমস্যার কথা তুলে ধরেন।

ফ্রি রেশন

WhatsApp Group Join Now
Telegram Group Join Now

আর সেগুলি সরাসরি পৌঁছে যায় রাজ্যের মন্ত্রী এবং আমলাদের কাছে। ফলে খুব সহজেই করা যায় সমাধান। আর এবারেও রাজ্যের খাদ্য মন্ত্রীর তত্ত্বাবধানের পর এই সমস্যার কথা পৌঁছায় রাজ্যের মাননীয় মুখ্যমন্ত্রী মমতা ব্যানার্জীর কাছেই। আর তিনি বিষয়টি গুরুত্বের সাথে দেখেন। ফ্রি রেশন তোলার জন্য Ration Card -এর সঠিক সমাধান বের করে আনা হয়। এবার থেকে রাজ্যের জনগণ ফ্রি রেশন পেতে আরও যে বাড়তি সুবিধা পাবেন, তা এবারে জেনে নেয়া যাক।

WB Free Ration Card Facility Under WBPDS

সেপ্টেম্বর থেকেই ফ্রি রেশন পাওয়া নিয়েই এই বড়ো রকমের বদল করা হচ্ছে। এক্ষেত্রে ফ্রি রেশন পেতে করতে পারবেন এই কাজ। আগে প্রত্যেকের রেশন কার্ডে উল্লেখ করতেই হতো পরিবার প্রধানের নাম। সেক্ষেত্রে কারো যদি একই পরিবারের সদস্যেরা আলাদা কার্ড রাখতে চাইতেন, তাহলেও তাদের দিতে হত পরিবার প্রধানের নাম। আর সেক্ষেত্রেও অনেকের দেখা গেছে নানা সমস্যা। দেখা যাচ্ছে যে, সদস্যের নামের বানান ঠিক থাকলেই ভুল থেকে গেছে পরিবার প্রধানের নামে।

রেশন কার্ড বাতিলের খাতায়, মিলবে না ফ্রি রেশন! সমাধান পেতে এখুনি দেখুন।

আর এবারে নতুন নিয়মে নিজ নিজ রেশন কার্ডে না রাখলেও চলবে নিজের পরিবার প্রধানের নাম। এর ফলে অনেক পরিবারে আর হবেও না কোন রকমের বাড়তি সমস্যা। রাজ্যের মাননীয় মুখ্যমন্ত্রী মমতা ব্যানার্জী নতুন ঘোষণা করেছেন এই বিষয়ে। তিনি জানিয়েছেন যে, বিনামূল্যে রেশন পেতে আর কোন রকমের ঝামেলার স্বীকার হতে হবে না কাউকেই।

WhatsApp Group Join Now
Telegram Group Join Now

রেশন কার্ডে পরিবার প্রধান বদল, নতুন নিয়ম

দেশের “NFS Act. 2013” অর্থাৎ ন্যাশনাল ফুড সিকিউরিটি অ্যাক্ট ২০১৩ অনুসারে রেশন কার্ডের নিয়ম গুলি নির্ধারিত হয়ে থাকে। এই নিয়মে পরিবার প্রধান হিসেবে রেশন কার্ডের মধ্যে থাকবে পরিবারের মহিলার নাম। এই নিয়মে কর্ণাটক রাজ্যে রেশন কার্ডে ছাপা থাকে পরিবারের প্রধান হিসেবে মহিলাদের নাম। তবে পশ্চিমবঙ্গে রয়েছে ব্যাক্তিভিত্তিক রেশন কার্ড। সেক্ষেত্রে এবারে নতুন নিয়মে পরিবার প্রধানের নাম দিলেও হবে আবার না দিলেও হবে।

কর্মসাথী পরিযায়ী শ্রমিক সুবিধা পাবে ২ লক্ষ ২৮ হাজার টাকার! আবেদন শুরু, দেখুন।

শাশুড়ি বৌ’মার ঝামেলার অবসান

পরিবার প্রধান হিসেবে থাকবে কার নাম! শাশুড়ির নাম নাকি বৌ’মার নাম। এই Update on Family Head -নিয়েই অনেক পরিবারের মধ্যে বহু দিন থেকেই ঝামেলার সৃষ্টি হয়েছে। আর তা দুয়ারে সরকার ক্যাম্পের মাধ্যমে খাদ্যমন্ত্রীর হাত ধরে পৌঁছে গেছে সরাসরি রাজ্যের মুখ্যমন্ত্রীর কাছে। আর খুব দ্রুতই তার সমাধান বেরিয়ে এসেছে। এই ঝামেলার থেকে মুক্ত হয়ে গেল রাজ্যবাসী।

খাদ্যমন্ত্রীর প্রথম পদক্ষেপেই হল সমস্যার সমাধান
রাজ্যের খাদ্যমন্ত্রী এই সমস্যা জানিয়ে দেন আমলাদের। বিভিন্ন আমলা এবং অন্যান্য কর্মকর্তাদের মধ্যে চলে বৈঠক। তারপর মুখ্যমন্ত্রী তথা CM Mamata Banerjee -এর সিদ্ধান্ত আসে সকলের সামনে। বেশ আনন্দের বাতাবরণ সৃষ্টি হয়েছে রাজ্যের মানুষের মধ্যে। এবারে এই পরিবর্তন করতে গেলে নিকটবর্তী CSC তথা কাস্টমার সার্ভিস সেন্টারে যোগাযোগ করতে পারেন।

WhatsApp Group Join Now
Telegram Group Join Now

বিশ্বকর্মা প্রকল্পে আবেদন করলেই ১৫ হাজার- দিচ্ছে মোদী সরকার! দেখে নিন পদ্ধতি।

সেখান থেকে অনলাইনে করা হয় আবেদন। কারণ এখন রাজ্যের প্রায় সমস্ত রকমের কাজ হয়ে থাকে ডিজিটাল প্রক্রিয়ার মাধ্যমে। এর ফলে কাজ যেমন হয় দ্রুত, তেমনই হয় নির্ভুল। তবে সরকার স্বীকৃত CSC থেকে আবেদন করলে থাকে অনেক বেশি নিরাপত্তাও। সকলে সুস্থ থাকুন, ভালো থাকুন। প্রতিদিন নতুন নতুন আপডেট পেতে আমাদের সাথে থাকুন।

Post Disclaimers

'whatsupbengal.in' একটি বাংলা অনলাইন ব্লগ নিউজ পোর্টাল। এই নিবন্ধে এবং আমাদের সোশ্যাল মিডিয়া প্ল্যাটফর্মে প্রদত্ত তথ্যগুলি বিশ্বাসযোগ্য, যাচাই করা এবং অন্যান্য বড় মিডিয়া হাউস থেকে নেওয়া হয়েছে তা নিশ্চিত করার জন্য আমরা সমস্ত ব্যবস্থা নিয়েছি। এই ওয়েবসাইটে দেওয়া বিষয়বস্তু শুধুমাত্র তথ্য ও শিক্ষামূলক উদ্দেশ্যে।
যোগাযোগ - wspbengal@gmail.com
নম্বর - 6297256750 (হোয়াটসঅ্যাপ)

আমাদের সাথে যুক্ত থাকুন

*ফেসবুক পেজ - Join Here
*হোয়াটস্যাপ চ্যানেল - Follow Us
*টেলিগ্রাম চ্যানেল - Join Here
*কু অ্যাপ - Like Us
*ট্যুইটার - Follow Us

হ্যালো প্রিয় পাঠকবৃন্দ, আমরা একটি দল হিসেবে কঠোর পরিশ্রম করছি আপনাদের জন্য শুধুমাত্র শিক্ষামূলক উদ্দেশ্যে বিশ্বাসযোগ্য এবং মূল্যবান কন্টেন্ট সরবরাহ করতে। আমরা শিক্ষা, সরকারি স্কিম, সরকারি কর্মচারী, প্রযুক্তি, টেলিকম, দৈনিক আপডেট, আর্থিক বিষয়, ব্যবসার ধারণা, বৃত্তি ইত্যাদি নিয়ে কাজ করছি। আশা করি আপনাদের ভালো লাগবে। প্রতিটি ব্লগ পোস্টের জন্য একটি মূল্যবান মন্তব্য করতে ভুলবেন না। আমাদের সাথে থাকার জন্য ধন্যবাদ। কোনো প্রয়োজনে আমাদের wspbengal@gmail.com ঠিকানায় লিখুন।

Leave a Comment

Home
জয়েন চ্যানেল
জয়েন গ্রুপ
ফলো পেজ
আপডেট
error: Content is protected !!
Madhyamik Exam – মাধ্যমিক নয়ে জরুরী নির্দেশিকা প্রকাশ পোস্ট অফিসে ডাবল রিটার্ন, এভাবে টাকা জমালেই পাবেন সুযোগ! স্কুল ছুটির ঘোষণা রাজ্যে! টানা ২ দিন বন্ধ থাকছে, দেখুন।